মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১, ০৪:৪৩ পূর্বাহ্ন

বাউফলে আ’লীগ নেতা ও সাংবাদিক’র উপর হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভসহ ঝাড়ু মিছিল.

প্রতিবেদকের নাম :
  • আপডেটের সময় : মঙ্গলবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ১২৭ সময় দর্শন

নিজস্ব প্রতিনিধি :

পটুয়াখালীর বাউফলে  জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক ও পৌর মেয়র জিয়াউল হক জুয়েলের সমর্থকরা সাবেক চীফ হুইপ আ.স.ম ফিরোজ এমপি সমর্থিত ঢাকার রাজপথে শহীদ ইব্রাহিম সেলিমের সহোদর বাউফল উপজেলা আওমীলীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক ও পৌর-আওমীলীগের সভাপতি এবং নাজিরপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ইব্রাহিম ফারুক ও জেলা পরিষদের সদস্য হারুন অর-রশিদের উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভসহ  ঝাড়ু মিছিল ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি-২০২১) বেলা ১১টার সময় উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপজেলা দলীয় কার্যালয় জনতা ভবন থেকে ওই বিক্ষোভসহ ঝাড়ু মিছিল করে থানা সংলগ্ন ডাক বাংলোর সামনে ইলিশ চত্বরে হামলাকারীদের গ্রেফতার পূর্বক বিচারের দাবীতে রাস্তায় অবস্থান কর্মসূচী ও প্রতিবাদ সভা করেন।

গত রবিবার সন্ধ্যা ৭ টার দিকেজেলা আওমীলীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক ও পৌর মেয়র জিয়াউল হক জুয়েল সমর্থকরা পাবলিক মাঠ সংলগ্ন যাত্রী ছাউনিতে অবস্থানরত সময় অতর্কিত হামলা চালায়। তাতে পৌর আওমীলীগের সভাপতি ইব্রাহিম ফারুক ও জেলা পরিষদের সদস্য স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি হারুন অর-রশিদ আহত হন। পরে আহত অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল হাসপাতালে পাঠানো হয়।

ইব্রাহিম ফারুকের অবস্থা আশংকাজনক দেখে বরিশাল থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

উপজেলা আওমীলীগের সহ:সভাপতি ও ভাইস চেয়ারম্যান মোশারেফ হোসেনের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওমীলীগের সাধারন সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান মোতালেব হাওলাদার, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মরিয়াম বেগম নিশু, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি শাহজাহান সিরাজ, যুবলীগের সাধারন সম্পাদক ও কালাইয়া ইউপি চেয়ারম্যান ফয়সাল আহম্মেদ মনির মোল্লা, সাংগঠনিক সম্পাদক ইব্রাহিম খলিল, স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারন সম্পাদক রিয়াজ সিকদার প্রমুখ।

এসময় বক্তরা বলেন, পৌর আওমীলীগের সভাপতি ও নাজিরপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রতিদিনের ন্যায় রবিবার সন্ধ্যায় একা যাত্রী ছাউনিতে বসেছিলেন। মেয়র সমর্থিত সন্ত্রাসীরা কুন্ডপট্রি থেকে একটি মিছিল নিয়ে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে  তার উপরে অতর্কিত হামলা চালায়। হামলায় ইব্রাহিম ফারুকের বাম চোখে ও বাহাতে আঘাতপ্রাপ্ত হয়। ইব্রাহিম ফারুককে রক্ষা করার জন্য উপজেলা স্বেচ্চাসেবকলীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের সদস্য হারুন অর-রশিদ এগিয়ে গেলে তার মাথা ফাঠিয়ে দেওয়া হয়। তাদের মিছিলের উপর কেউ হামলা করেনি। আশংক অবস্থায় পৌরসভাপতি ইব্রাহিম ফারুককে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়া হয়েছে ও স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি হারুন অর-রশিদ বরিশাল মেডিকেল কালেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। পুলিশ প্রশাসনকে হামলাকরীদের দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবী করেন ।

ওসি মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, এব্যাপারে ৩৪ জনকে আসামী করে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। তাতে তিনজনকে গ্রেফতার করা হয় ।

উল্লেখ্য. মহান আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে শহীদ মিনারে শহীদদের স্বরনে ফুল দেওয়ার জন্য উপজেলা আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনকে এক সাথে মাইকে অনুরোধ করা হলে, সংসদ সদস্য আ স ম ফিরোজ নেতৃত্বাধীন উপজেলা ও পৌর-আওয়ামীলীগসহ অংগ সংগঠনের নেতা কর্মীরা শহীদ বেদীতে উঠেন। এর পরেই মেয়র জিয়াউল হক জুয়েল নেতৃত্বাধীন আওয়ামীলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ফুল দিতে উঠেন । শ্রদ্ধা নিবেদন কারা আগে দিবে তা নিয়ে প্রশাসনের সামনে উভয়ের মধ্যে কথাকাটাকাটি এবং হাতাহাতি হয়।

এম.জাফরান হারুন                                                                      দেশের কন্ঠ ২৪.কম

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
২০২০© এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ*
সহযোগিতায় রায়তা-হোস্ট ডিজাইন : SmartiTHost
desharkontho-lite