শুক্রবার, ১৫ জানুয়ারী ২০২১, ১১:৫২ অপরাহ্ন

কিস্তির টাকা আদায় করতে গিয়ে দলবদ্ধ হয়ে গ্রাহককে মারধর করলো pmk_র কর্মীগণ

প্রতিবেদকের নাম :
  • আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ৮ অক্টোবর, ২০২০
  • ৮৭ সময় দর্শন
 স্টাফ রিপোর্টার :
জেলায়  কাশিমপুর ৪ন;ওয়ার্ডে গড়ে উঠেছে পল্লী  মঙ্গলের অবৈধ  শাখা।নেই কোনো  ট্রেড  লাইসেন্স। নেই কোনো নিয়ম নীতির বালায়। শতকরা ২৫_৩০% সুদে  রিন নেয় গ্রাহক। কিস্তির টাকা  দিতে একটু বিলম্ব হইতে দেয় না pmk_র মাঠকর্মীগণ।

গত ৬অক্টবর কাশিমপুর  থানা স;লগ্ন ইব্রাহিম  মার্কেট এ মো: রাজ্জাক এর বাড়িতে  pmk_র কর্মীগণ আসে গ্রহক কিস্তির টাকা  দিতে একটু দেরী হইলে  পল্লী মঙ্গলের কর্মীগণ গ্রহককে মারধর করে।
অনৈক্য  খারাপ ভাষায় ব‍্যবহার করে।
অফিসের ভিতরে কোনো নিয়ম কারন ঠিক নাই। করোনার সময় ৩মাসের বেতন  না দিয়ে বের করে দেওয়া হয়। একে তো করোনা ভাইরাস ক্রমবর্ধমান সারা বিশ্বের মধ্যে বিরাজমান।মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বলেন এই করোনা মোকাবেলায় সকলে মাক্স ব‍্যবহার ও দরিদ্রের মাঝে খাবার পৌঁছায়ে দিতে হবে।তিনি আর ওবলেন এক্ষেএে  দেশের সকল নেতা রাজনৈতিক  এমনকি দলের কোনো ভিধাবেদ না করে সকলকেই  এগিয়ে  আসতে হবে। তবে এই করোনার সময়ে কি ভাবে শ্রমিকে বেতন ৩মাসের জন্য  বন্ধ করে দেয় পল্লী  মঙ্গল  কর্মসূচি।
শ্রমিক নাখেয়ে দিনকাটে,খিদার যন্ত্রণায় ছটপট করে pmk_র জন্য।  পল্লী  মঙ্গল  কর্মসূচি  এভাবে  যদি চলতে থাকলে এমন এক সময় আসবে, পুরো অঞ্চলটি এমনকি পুরো দেশটি  ও অন্ধকারে ছেয়ে যেতে পারে।এতে করে দেশের  অসহায় দরিদ্র নাগরিক বিন্দুর বেচে থাকার শেষ অবলম্বনটুকু আর থাকবেনা। একটা ব‍্যবসা বাণিজ্য প্রতিষ্ঠান খুললে তার কি কি প্রয়োজন সেদিকে কোনো দৃষ্টি নেই pmk_র।
তবে কিভাবে এই প্রতিষ্ঠান এখনো খোলা আছে এই বিষয় সরকারের প্রতি  অবগত জানায়।
pmk_র মেইন অফিস শ্রীপুর এব;শাখা হাজী মার্কেট  কাশিমপুর ৪ন; ওয়ার্ড। বাকী সব কিছু  ০২_পর্বে নিউজে জানানো হবে।
     মো:ইমরান মোল‍্যা                                                                                                  দেশের কন্ঠ  ২৪.কম

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
২০২০© এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ*
সহযোগিতায় রায়তা-হোস্ট ডিজাইন : SmartiTHost
desharkontho-lite